স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা

দাঁতের সমস্যা সমাধানে আপনি যা করতে পারেন

দাঁতের সমস্যা

হাসি মানুষের আত্মবিশ্বাস বাড়ায়, একটি সুন্দর হাসি অনেকের মুড পরিবর্তন করে দিতে পারে।আপনার হাসি সুন্দর রাখতে হলে অবশ্যই আপনাকে আপনার দাঁতের যত্ন নিতে হবে। আমি আপনাদের দাঁত সুন্দর রাখতে এবং দাঁত সুস্থ রাখতে দাঁতের সমস্যা প্রতিরোধক কিছু টিপস নিচে লিখেছি আশা করছি পুরো লেখাটি পড়ে আপনি উপকৃত হবেন।

আপনি কিভাবে আপনার দাঁত সুস্থ রাখতে পারেন এবং দাঁতের সমস্যা প্রতিরোধে আপনি কি করতে পারেন

দাঁত ব্রাশ করা খুবই জরুরী, এটি ব্যাকটেরিয়া দূর করতে সাহায্য করে যা দাঁতের এবং দাঁতের মাড়ির রোগ প্রতিরোধে সাহায্য করে।আমেরিকান ডেন্টাল অ্যাসোসিয়েশনের মতে আপনাকে প্রতিদিন অন্তত দুইবার ব্রাশ করতে হবে।আপনাকে অবশ্যই একটি নরম টুথব্রাশ ব্যবহার করতে হবে। ব্রাশ করার সময় অবশ্যই মনে রাখতে হবে দাঁত এবং জিব্বা উভয় পরিষ্কার করতে হবে দাঁত এবং দাঁতের মাড়ি ভালোভাবে পরিষ্কার করার জন্য ভালো মানের একটি টুথপেস্ট ব্যবহার করুন।

আপনাকে অবশ্যই প্রতি রাত্রে ঘুমানোর আগে একবার ব্রাশ করতে হবে আপনার যদি এরকম অভ্যাস থাকে যে আপনি সকালে উঠে চা অথবা কফি পান করেন তাহলে সকালে উঠে আপনার ব্রাশ না করার পরিবর্তে হালকা কুলি করে চা অথবা কফি পান করে নিন তারপর ব্রাশ করে নিন এতে করে আপনার দাঁতের মাড়িতে ডেন্টাল প্লাক জমার সম্ভাবনা কম থাকবে। আপনার মুখ থেকে দুর্গন্ধ বের হবে না।
মুখের যত্নে আপনাকে প্রতিদিন অন্তত একবার ফ্লসিং করা উচিত ফ্লসিং করার সুবিধা হচ্ছে যে সমস্ত জায়গায় আপনার ব্রাশ পৌছাতে পারেনা ঐ সমস্ত জায়গায় যদি খাওয়ার আটকায় থাকে তাহলে ডেন্টাল ফ্লসিং এর মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই জমে থাকা খাবার সরিয়ে ফেলতে পারবেন।

নির্দিষ্ট কিছু খাবারের কারণে কি দাঁতের সমস্যা হতে পারে?

আপনি প্রতিদিন ব্রাশ ডেন্টাল ফ্লস ব্যবহার করার পরেও কিছু নির্দিষ্ট খাওয়ার আপনার দাঁতের এনামেল ক্ষয় করে ফেলতে পারে।সোডা জাতীয় চিনিযুক্ত পানীয় গুলি আপনার মুখে এসিড তৈরি করে যা আপনার দাঁতের এনামেল নষ্ট করে দেয়. যখন এনামেল নষ্ট হয়ে যায় তখন আপনার দাঁতের ক্ষয় হবার প্রবণতা বেড়ে যায় সুতরাং সোডা, ডায়েট সোডা এড়ানো ভাল। আপনার লক্ষ্য যদি হয় স্বাস্থ্যকর মুখ তবে চকলেট ও আপনার জন্য ভালো পছন্দ নয় ।তবে আমি আপনাকে চকলেট একেবারেই এড়িয়ে যাওয়ার কথা বলছি না কিছু নির্দিষ্ট চকলেট থেকে আপনাকে অবশ্যই সতর্ক থাকতে হবে যেমন আঠালো এবং চিনিমিশ্রিত চকলেট এই চকলেট গুলো খেতে কিছুটা সময় লাগে বলে এগুলো আপনার দাঁতে অনেক বেশি সময় ধরে লেগে থাকে চিনি থেকে এসিড এবং ব্যাকটেরিয়াকে আপনার দাঁতের ক্ষতি করতে অনেক বেশি সময় দেয়।

আপনি কি আপনার দাঁতের খুব ভালো যত্ন নিতে পারছেন?

আপনি হয়তো দাঁতের যত্নে করণীয় অনেক কিছুই করছেন হয়তো আপনি দিনে অনেকবার ব্রাশ করছেন অনেক সময় ধরে ব্রাশ করছেন আপনাকে মনে রাখতে হবে অতিরিক্ত সবকিছুই খারাপ। দাঁতের সঠিক যত্নে দুইবারের বেশি ব্রাশ করার প্রয়োজন নেই এবং তিন থেকে চার মিনিটের বেশি সময় ধরে ব্রাশ করার প্রয়োজন নেই।আপনি যদি অতিরিক্ত সময় ধরে ব্রাশ করেন এবং অনেকবার ব্রাশ করেন তাহলে খুব সম্ভাবনা আছে আপনার দাঁতের এনামেল ক্ষয় হওয়ার সাথে সাথে অন্যান্য সমস্যা দেখা দেয়ার।অনেকবার অথবা অনেক সময় ধরে ব্রাশ করার কারণে আপনার দাঁতের মাড়ির এনামেল ক্ষয় হবে যার কারনে আপনার দাঁতের চারপাশের কিছু দুর্বল হয়ে যেতে পারে এতে ব্যাকটেরিয়া আপনার দাঁতে প্রবেশ করতে পারে. ভবিষ্যতের দাঁত সুস্থ রাখতে দাঁতের যত্নে দুইবার ব্রাশ করা ফ্লাশিং করা এবং উচ্চ চিনিযুক্ত খাবার এবং পানীয় অবশ্যই পরিহার করা দরকার।

দাঁতের ক্ষয় রোধ করতে করণীয়

  1. দিনে কমপক্ষে দুবার ফ্লুরাইডযুক্ত টুথপেস্ট দিয়ে দাঁত ব্রাশ করুন। সাধারণত, প্রতিটি খাবারের পরে এবং বিশেষত বিছানায় যাওয়ার আগে ব্রাশ করুন।
  2. ডেন্টাল ফ্লস বা ইন্টারডেন্টাল ক্লিনার, যেমন ওরাল-বি ইন্টারডেন্টাল ব্রাশ, রিচ স্টিম-ইউ-ডেন্ট বা সুলক্যাব্রাশের মাধ্যমে আপনার দাঁত প্রতিদিন পরিষ্কার করুন
  3. ফ্লোরাইডযুক্ত মাউথওয়াশ দিয়ে প্রতিদিন কুলি করে ফেলুন। এতে কিছু ধীরে ধীরে প্লাক সৃষ্টিকারী ব্যাকটিরিয়াকে মেরে ফেলার জন্য অ্যান্টিসেপটিক উপাদান রয়েছে।
  4. পুষ্টিকর এবং সুষম খাবার খাওয়া এবং স্ন্যাক্স সীমাবদ্ধ করুন। ক্যান্ডি, প্রিটজেল এবং চিপসের মতো কার্বোহাইড্রেটগুলি এড়িয়ে চলুন যা দাঁত পৃষ্ঠের উপর থেকে যায়। স্টিকি খাবার যদি খাওয়া হয় তবে খুব শীঘ্রই আপনার দাঁত ব্রাশ করুন।
  5. ফ্লুরাইডেট পানি পান করুন। দাঁত ক্ষয় থেকে বাচ্চাদের রক্ষা করার জন্য প্রতিদিন ফ্লুরাইডেট পানি প্রয়োজন।

ফ্লোরাইড হ’ল এমন একটি পদার্থ যা দাঁতকে শক্তিশালী এবং ক্ষয় প্রতিরোধী হতে সাহায্য করে।

কখন আপনার দাঁতের ডাক্তারের কাছে যাওয়া উচিত

  • যদি মাড়ি ফুলে যায় মাড়ি লাল হয়ে যায় এবং মাড়ি থেকে রক্ত ক্ষরণ হয়
  • গরম অথবা ঠান্ডা খাবার অথবা পানিও খাবার সময় অথবা পান করার সময় যদি দাতে প্রচুর পরিমাণে শিরশির অনুভূতি হয়
  • খাবার চিবিয়ে খেতে সমস্যা অনুভব করলে
  • ক্রমাগত মুখ থেকে দুর্গন্ধ হলে
  • যদি আঘাতের কারণে স্থায়ী দাঁত ভেঙে যায়
  • দাঁতের ক্ষয় এর কারণে যদি অবিরাম দাঁত ব্যথা করতে থাকে

কিছু জিনিস যা আপনাকে দাঁত ক্ষয়ে যাওয়ার ঝুঁকিতে ফেলেছে

  1. ডায়াবেটিস আপনার দাঁত ক্ষয় হওয়ার ঝুঁকিতে ফেলেছে
  2. উচ্চতর শর্করা যুক্ত বা মিষ্টিজাতীয় খাবার খাওয়ার ফলে আপনার মুখের ব্যাকটেরিয়াগুলোকে শক্তির যোগান দিচ্ছে নিয়মিত দাঁত ব্রাশ বা ফ্লসিং এর অভাবে আপনার দাঁত ক্ষয় হতে পারে
  3. নিয়ম অনুযায়ী ডাক্তার দিয়ে দাঁত চেকআপ না করানো
  4. মুখ শুকনো থাকা বা মুখে পর্যাপ্ত পরিমাণ লালা না থাকা লালা চিনিযুক্ত খাবার সরিয়ে ফেলে এবং আপনার দাঁতের এনামেল ক্ষয় রোধ করতে সাহায্য করে।

Reference

https://www.webmd.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Bengali BN English EN Hindi HI