আত্মউন্নয়ন

বড়লোক হওয়ার কিছু অভ্যাস যা আপনার জানা উচিত

বড়লোক হওয়ার কিছু অভ্যাস

ধনী হওয়া এবং আর্থিক স্বচ্ছলতা পাওয়া একটি খেলার মত আপনি যেই সেক্টরে কাজ করেন না কেন অবশ্যই আপনাকে একটি কম্পিটিশন এর মাধ্যমে যেতে হবে প্রত্যেকটা খেলার মতই এখানেও একটি লক্ষ্য আছে প্রতিদ্বন্দী আছে । এখানে বেস্ট প্লেয়ারের জন্য ট্রফি রাখা আছে । অন্যান্য খেলার মত মানি গেমেও জিততে হলে আপনাকেও কিছু রুলস মেনে চলতে হবে তখনই আপনি এই খেলায় চ্যাম্পিয়ন হতে পারবেন , আপনি আপনার আর্থিক স্বচ্ছলতা পাবেন ।যদি ফলো না করেন হতে পারে আপনিও গরীব অথবা মধ্যবিত্তের সার্কেলে ঘুরতে থাকবেন। আমি আপনাদের সাথে ধনী ব্যক্তিদের ফলো করা সাতটি রুলস আলোচনা করব এই রুলস গুলো পৃথিবীর ধনী ব্যক্তিরা অনেক বছর থেকে ফলো করে আসছেন। আপনাদের সাথে রুলস গুলী শেয়ার করার মানে হচ্ছে আপনিও যেন এই রুলস গুলো ফলো করে আর্থিক স্বচ্ছলতা পেতে পারেন ।

অর্থ সঞ্চয় থেকে উপার্জনের দিকে বেশি মনোনিবেশ করুন

focus on making more money then saving money

আপনি হয়তো ইতিমধ্যে জেনে থাকবেন টাকা সেভ করা আর্থিক স্বচ্ছলতা পাওয়ার প্রথম ধাপ বেশিরভাগ মানুষ টাকা জমানোর অভ্যাস করেন, জমানো টাকা বিভিন্ন জায়গায় ইনভেস্ট ও করে থাকেন। সমস্যাটা হচ্ছে বেশিরভাগ মানুষই জীবনের গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়ের প্রতি সিদ্ধান্ত নিতে ভুল করে অথবা মানুষ কম্ফর্ট জোনের ভিতরে থাকতে ভালোবাসে ।টাকা জমানোর খুব ভালো জিনিস কিন্তু শুধু টাকা জমিয়ে এবং জমানো টাকা ইনভেস্ট করে আপনি খুব দ্রুত সম্পদশালী হতে পারবেন না খুব দ্রুত সম্পদশালী হতে হলে আপনাকে যা করতে হবে সেটি হচ্ছে টাকা জমানোর সাথে সাথে কিভাবে আয় বৃদ্ধি করা যায় তার উপরে ফোকাস করতে হবে ।আচ্ছা আপনি চিন্তা করে দেখেন তো আপনি যে গাড়িটি কিনার স্বপ্ন দেখছেন সেটা কি আপনি ইয়ং বয়সে কিনে নিজের শখ পূরণ করতে চান নাকি বৃদ্ধ বয়সে।আপনি যদি তিরিশ বছর অথবা এর আশেপাশে বয়সে গাড়ির মালিক হতে চান তাহলে আপনাকে টাকা জমানো এবং ইনভেস্ট করার সাথে সাথে আপনার ইনকাম দশগুণ বাড়ানোর দিকে মনোযোগী হওয়া উচিত কেননা আপনার প্রোডাক্ট সার্ভিস অথবা আপনার স্কিল আপনাকে অল্প সময়ের ভিতরে এত টাকা আয় করে দিতে পারে যা আপনার জমানো টাকা ইনভেস্ট করে হয়তো নাও ইনকাম করতে পারেন ।টাকা জমানোর খুবই ভালোজমানো টাকা আলাদা আলাদা জায়গায় ইনভেস্ট করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ । তবে প্রত্যেকটা মানুষের জন্য সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ ইনভেস্ট হচ্ছে নিজের উপর ইনভেস্ট করা ।টাকা ইনকাম করার দুইটা রাস্তা একটি হচ্ছে স্লো ওয়ে অন্যটি হচ্ছে ফাস্ট ওয়ে বিস্তারিত পড়তে আমাদের ব্লগে বিষয়টি নিয়ে বিস্তারিত লেখা আছে।

টাকার পিছনে না ছুটে স্কিল এর পিছনে ছুটুন

টাকার পিছনে না ছুটে স্কিল এর পিছনে ছুটুন

নিজেকে এমন ভাবে তৈরি করুন যেন টাকা আপনাকে খুঁজে আপনার লক্ষ অনুযায়ী নিজেকে এমন ভাবে তৈরি করুন নিজের স্কিল এমনভাবে বাড়িয়ে চলুন যেন আপনার ফিল্ডে আপনি মাস্টার হতে পারেন। মার্কেটে আপনি যত ভ্যালু প্রোভাইড করবেন মানুষ আপনাকে ততই টাকা দিবে। মানুষের সমস্যা সমাধান করে দেয়ার জন্য আপনি সত্যিই অনেক টাকা আয় করতে পারবেন যদি আপনি ভালো স্কিলফুল ব্যক্তি হয়ে থাকেন হয়তো খেয়াল করলে দেখবেন পাবলিক স্পিকার কয়েক ঘণ্টার স্পিচ দেয়ার জন্য অনেক টাকা আয় করে থাকেন আবার অনেক মানুষ আছে যারা সকালে ঘুম থেকে উঠার পর থেকে রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগ পর্যন্ত টাকার পেছনে ছোটে কিন্তু তারপরেও তার তাদের চাহিদা মতো টাকা আয় করতে পারে না । আবার এমন মানুষ আছে যারা অল্প কিছুক্ষণ কাজ করে এত টাকা আয় করে যা তাদের জীবন যাপনের জন্য যতটুকু লাগবে তার থেকে অনেক বেশি ।এখন আপনি চিন্তা করে দেখুন এই মানুষগুলো এত টাকা কিভাবে ইনকাম করছে আপনি কি ভাবছেন তারা খুব ভাগ্যবান ।আসলে সত্যিটা হচ্ছে তারা তাদের কাজে এতটাই দক্ষ এতটাই স্কিলফুল যে টাকা তাদের কে ফলো করে।

যত বেশি শিখতে পারবেন তত বেশি উপার্জন করতে পারবেন

 the more you learn the more you earn


ইন্টারনেটের কল্যাণে এই লেখাটি আপনি ফ্রিতে পড়তে পারছেন একবার চিন্তা করে দেখুন তো যদি ইন্টারনেট না থাকতো তাহলে আপনাকে এই কথাগুলো শিখতে হলে অনেক সময় এবং টাকা ‌ ব্যয় করে বই পড়ে শিখতে হতো আপনার শিখা কোন নলেজ আপনার তখনই কাজে আসবে যখন সেটা আপনি আপনার জীবনে এপ্লাই করবেন ।আপনি যত নতুন নতুন বিষয় শিখবেন ততই আপনার নলেজ বাড়তে থাকবে আপনি যত এপ্লাই করবেন ততো আপনার অভিজ্ঞতা বাড়তে থাকবে ।টাকা-পয়সার রিলেটেড যতই আপনি পড়বেন ততই আপনার মানি গেমের নলেজ হবে আপনি যত এই নলেজ এপ্লাই করবেন ততোই সুযোগ থাকবে আপনার তাড়াতাড়ি ধনী হওয়ার ।আপনার জমানো যত টাকায় থাকুক না কেন ,কম অথবা বেশি যাই হোক না কেন আপনি সেটা অপচয় না করে নতুন কিছু শিখায় ,জ্ঞান অর্জন করায় ব্যবহার করুন। বিশ্বের জনপ্রিয় ইনভেস্টর ওয়ারেন বাফেট বলেছেন THE BEST INVESTMENT YOU CAN MAKE IS IN YOURSELF AND THE MORE YOU LEARN THE MORE YOU EARN.

যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আপনি শুরু করুন

start as soon as you can

দুঃখজনক বিষয় হলেও সত্যি আজকালকার তরুণসমাজ সোশ্যাল মিডিয়ায় অথবা গেম খেলায় 2,3 ঘন্টা ব্যয় করতে পারলেও নতুন কিছু শিখায় নিজের জীবনের স্বপ্ন পূরণ করার জন্য ব্যয় করতে পারেনা। যেহেতু আপনি লেখাটা পড়ছেন মানে হচ্ছে আপনি নিজের জীবন পরিবর্তন করার ইচ্ছা রাখেন সুতরাং অন্য মানুষের মত নিজের মূল্যবান সময় অপচয় না করে নিজের স্বপ্ন পূরণ করার জন্য সময়কে সঠিকভাবে ব্যবহার করুন। এখন আপনার যে বয়স আপনার যে সময় আছে তা সঠিকভাবে ব্যবহার করে আপনি আর্থিক স্বচ্ছলতা পেতে পারেন সেজন্য আপনাকে আপনার স্বপ্ন আপনার লক্ষ অনুসরণ করতে হবে ।স্বপ্ন পূরণ করার জন্য আপনাকে অনেক পরিশ্রম করে যেতে হবে হয়তো এখন আপনার কাছে আপনার দরকারি জিনিস গুলি নেই আপনার পরিবারের কাছে যথেষ্ট টাকা নাও থাকতে পারে হয়তো এখন আপনার কাছে কোন লিংক নেই। আপনার মাথায় যত ভালো বিজনেস আইডিয়ায় থাকুক না কেন কারো কিছু আসে যাবে না যতক্ষণ পর্যন্ত আপনি এই আইডিয়া এপ্লাই না করবেন ,ততক্ষণ পর্যন্ত এটি শুধু একটি আইডিয়া হয়ে থাকবে সুতরাং যত দ্রুত সম্ভব হয় আর্থিক স্বচ্ছলতা পাওয়ার জন্য আপনাকে শুরু করে দিতে হবে আপনি হয়তো এই লেখাটি পড়েছেন IF YOU ARE BORN POOR ITS’ NOT YOUR MISTAKE BUT IF YOU DIE POOR IT’S YOUR MISTAKE সুতরাং নিজের ভবিষ্যৎ পরিবর্তন করার জন্য যত দ্রুত সম্ভব হয় কাজ শুরু করে দিন।

মাসিক বাজেট তৈরি করুন

মাসিক বাজেট তৈরি করুন

হতে পারে আপনি একজন স্টুডেন্ট, সার্ভিস হোল্ডার অথবা ব্যবসায়ী, একটি রুলস আপনার সব সময় ফলো করা উচিত সেটা হচ্ছে আপনার টাকা ট্র্যাক করা আপনার মান্থলি বাজেট এবং মান্থলি খরচের হিসাব রাখা আপনার কাছে যত টাকাই থাকুক। আপনার দেখা উচিত আপনি কোথায় কত টাকা খরচ করছেন। আপনার নিড কি এবং আপনার ওয়ান্ট কি যত টাকা আপনি মাসে খরচ করবেন বলে বাজেট করেছেন তার ভিতরে সীমাবদ্ধ থাকতে হবে। এর থেকে বেশি খরচ কোনভাবেই করা যাবে না আপনার কাছে আপনার প্রতিটা টাকার হিসেব থাকতে হবে ।

ধনী না হওয়া পর্যন্ত গরিব থাকুন

ধনী না হওয়া পর্যন্ত গরিব থাকুন

ব্যবসা অথবা চাকরি থেকে যখন টাকা আসার শুরু হয় আমাদের সবার ইচ্ছে হয় ভালো ভালো জিনিস কিনার ভালো জায়গায় ঘুরতে যাওয়ার ভালো ভালো খাবার খাওয়ার। আমরা বিশ্বাস করতে থাকি যে অনেক কষ্ট করে টাকা ইনকাম করেছি এখন নিজের ইচ্ছামত খরচ করব কিন্তু একটা বিষয় আমরা সবাই ভুলে যাই এত কষ্ট করে আয় করা টাকা ফোন কোম্পানি অথবা অন্য কোনো ব্র্যান্ডের পিছনে খরচ করি ।আমাদের লক্ষ্য থাকা উচিত আমরা যখন টাকা ইনকাম করতে থাকব তখন আমরা ওই টাকা থেকে কিভাবে আরো টাকা ইনকাম করা যায় তার পথ খুঁজে বের করবো ।আমরা যদি খুব ভালো জায়গায় টাকা ইনভেস্ট করতে পারি এবং নিজের আয় বৃদ্ধির বিভিন্ন উপায় খুঁজতে থাকি তাহলে আর্থিক স্বচ্ছলতা পাওয়াটা খুব সহজ হয়ে যাবে আমাদের জন্য। আমাদের লক্ষ্য হওয়া উচিত আমরা যতটুকু এফোর্ট করতে পারব ঠিক ততটুকুই যেন খরচ করি আপনি দামি ব্র্যান্ডের কাপড়, ফোন ,গাড়ি সব কিছুই কিনতে পারবেন কিন্তু তার আগে আপনাকে এত টাকা ইনকাম করতে হবে বা করার পথ তৈরি করতে হবে যেন আপনি আপনার পছন্দের সকল দামি জিনিস কিনতে গেলে দ্বিতীয়বারে চিন্তা না করতে হয় ।

ঋণ করা থেকে দূরে থাকুন

ঋণ করা থেকে দূরে থাকুন

সাধারণত কারোই খুদ্র কর্মচারী হওয়ার শখ থাকে না কিন্তু সমাজে টিকে থাকার জন্য আমাদেরকে মাঝেমধ্যে অনেক সিদ্ধান্ত নিতে হয় টাকা ইনকাম করার জন্য ।আমরা এতটাই ব্যস্ত হয়ে যাই যে টাকা ইনকাম করার জন্য টাকার গোলামে পরিণত হতে হয়।অনেক মানুষ শুধুমাত্র মানুষকে দেখানোর জন্য ব্যাংক থেকে লোন নিয়ে এমন কিছু করে যেন সে সমাজে অনেক বড়লোক হিসেবে নিজেকে জাহির করতে পারে। একটা সময় যখন ব্যাংকের মাসিক টাকা দিতে হয় তখন সেই বোঝে লোনের কি জ্বালা। শুধুমাত্র কিছুসময়ের আনন্দের জন্য এরকম অনেক কাজ আমরা করে ফেলি যা আমাদের সত্যি করা উচিত নয়। আর্থিক স্বচ্ছলতা পেতে হলে সব রকমের ঋণ থেকে দূরে থাকতে হবে এবং ঋণ করার অভ্যাস সব সময় এড়িয়ে চলতে হবে।

2 Comments

    1. আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ, ইনশাআল্লাহ আমরা আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব ভালো ভালো বইয়ের রিভিউ লেখার জন্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Bengali BN English EN Hindi HI